Breaking News

ইংলিশদের হোয়াইটওয়াশ করে ইতিহাস গড়ল টাইগাররা

ওয়ানডে সিরিজে হারতে হয়েছে ২-১ ব্যবধানে। সেই হারের মধুর প্রতিশোধ বাংলাদেশ নিয়েছে টি-টোয়েন্টি সিরিজে। এই সংস্করণে প্রথমবার সিরিজ খেলতে নেমেই ইংল্যান্ডকে বাংলাওয়াশ করল টাইগাররা (৩-০)। মঙ্গলবার তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ইংলিশদের ১৬ রানে হারিয়েছে সাকিব আল হাসানের দল। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৫৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জবাবে ছয় উইকেটে ১৪২ রান তুলতে সক্ষম হয় ইংল্যান্ড। জিম্বাবুয়ের পর এই প্রথম আইসিসি পূর্ণ সদস্য কোনো দলকে টি-টোয়েন্টি সংস্করণে ধবলধোলাইয়ের নজির গড়ল বাংলাদেশ।

রান তাড়ায় ইংল্যান্ড অবশ্য সহজ জয়ের পথেই ছিল। পাঁচ রানে এক উইকেট হারালেও দ্বিতীয় উইকেটে ইংলিশদের পথ দেখান ডেউইড মালান ও অধিনায়ক জস বাটলার। এই দুজনের ৯৫ রানের জুটি ভেঙে ব্রেক থ্রু এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। মালানকে কিপার লিটন দাসের গ্লাভসে পরিণত করেন কাটার মাস্টার। পরের বলে মেহেদী হাসান মিরাজের দুর্দান্ত থ্রোতে রানআউট বাটলার। উইকেটে জমে যাওয়া দুই ব্যাটার সাজঘরে ফিরতেই কমে আসে ইংল্যান্ডের রানের গতি। সফরকারীদের চেপে ধরেন বাংলাদেশের বোলাররা। সেই চাপ আর সামলাতে পারেনি ইংলিশরা। ৪৭ বলে মালান ৫৩ এবং ৩১ বলে ৪০ রানে বিদায় নেন বাটলার।

বাটলার-মালানকে ফেরানোর পর নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে দুর্দান্ত জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। ১১ বলে ১১ রান করেন বেন ডাকেট। ১০ বলে ৯ রান এসেছে মইন আলির ব্যাট থেকে। শেষ দিকে ক্রিস জর্ডান ১০ বলে ১৩ রানে অপরাজিত থাকেন। যা ইংল্যান্ডের হারের ব্যবধান কমিয়েছে মাত্র। বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ দুই উইকেট নেন তাসকিন আহমেদ। এছাড়া তানভির ইসলাম, অধিনায়ক সাকিব ও মোস্তাফিজ একটি করে উইকেট নেন। এদের মধ্যে ফিজ ছিলেন সবচেয়ে কার্যকর। চার ওভারে ১৪ রান দিয়ে ম্যাচে মোড়টা তিনিই ঘুরিয়ে দিয়েছেন। বাংলাদেশের বোলিং ইনিংসের ঠিক বিপরীত চিত্র ছিল ব্যাটিংয়ে। শেষ দিকে প্রত্যাশিত রানই তুলতে পারেনি টাইগাররা। শেষ পাঁচ ওভারে মোটে ২৭ রান করে বাংলাদেশ।

শুরুতে অবশ্য বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দিয়েছিল টাইগাররা। উদ্বোধনী জুটিতে ৫৫ রান যোগ করেন লিটন দাস ও রনি তালুকদার। ২২ বলে ২৪ রানে আউট হয়ে যান রনি। তবে টিকে থাকলেন লিটন। হঠাৎই ছন্দপতন হওয়া এই ওপেনার অবশেষে জ্বলে উঠলেন শেষ ম্যাচে। খেললেন ৫৭ বলে ৭৩ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস। শেষ দিকে ৩৬ বলে ৪৭ রানের কার্যকর ইনিংস খেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। বাংলাদেশ ছাড়ায় ১৫০ রানের গণ্ডি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

বাংলাদেশ : ২০ ওভারে ১৫৮/২

ইংল্যান্ড : ২০ ওভারে ১৪২/৬

ফল : বাংলাদেশ ১৬ রানে জয়ী।

ম্যাচ সেরা : লিটন দাস

সিরিজ সেরা : নাজমুল হোসেন শান্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *