Breaking News

জায়গা জমির বিরোধে হত্যা করা হয় গৃহবধু তাজমিরাকে; ভাসুরসহ আটক-২

পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ পাইকগাছার গৃহবধু তাজমিরা হত্যা রহস্য অনেকটাই উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। জায়গা জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে গৃহবধু তাজমিরাকে হত্যা করা হয় বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ।

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গৃহবধুর ভাসুরসহ দু’জনকে আটক করা হয়েছে। আটক দু’জনের মধ্যে শহিদুল্লাহ মীর (৬০) সম্পর্কে গৃহবধু তাজমিরার ভাসুর এবং মফিজুল গাজী (৫৮) প্রতিবেশী ও শহিদুল্লাহর সহযোগী। গত বুধবার তাদের দু’জনকে আটক করা হয়। আটক দু’জনকে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার সকালে ধান ক্ষেতের পাশ থেকে গৃহবধু তাজমিরা বেগম (৩৮) এর গলাকাটা মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। সে উপজেলার ধামরাইল গ্রামের মীর ওবায়দুল্লাহ’র স্ত্রী। থানা পুলিশ ও সরেজমিন অনুসন্ধানে জানাগেছে, গৃহবধু তাজমিরার স্বামী ওবায়দুল্লাহরা ৫ ভাই। ৫ ভাইয়ের মধ্যে মামুন নামের এক ভাই পেশায় সাংবাদিক ছিল এবং পরিবার পরিজন নিয়ে তিনি খুলনাতে বাস করতেন। বেশ কয়েক বছর আগেই তিনি মারা যান। এরপর তার সন্তানরা গ্রামের প্রাপ্য পৈত্রিক সম্পত্তি চাচাদের নিকট থেকে বুঝে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তারা ১৫/২০ দিন আগে এলাকায় এসে তার চাচাদের নিকট তাদের প্রাপ্য জমি দাবী করে। চাচাদের নিকট বিক্রির ইচ্ছে থাকলেও যথাযথ মূল্য না পাওয়ায় মামুনের সন্তানরা তাদের প্রাপ্য জমির কিছু অংশ প্রতিবেশীদের নিকট বিক্রয় করে। যারা জমি ক্রয় করে তারা দখল বুঝে না পাওয়ায় এ নিয়ে ওবায়দুল্লাহ-শহীদুল্লাহদের সাথে এক ধরণের বিরোধ তৈরী হয়। এ নিয়ে দু’পক্ষ নির্বাহী আদালতে মামলা করে।

তাজমিরাকে হত্যার আগের দিন স্থানীয় মধ্যস্থতাকারী ব্যক্তি সৃষ্ট বিরোধ নিষ্পত্তির লক্ষে অনেকটাই অগ্রসর হলে এলাকার কতিপয় একটি মহল বা গোষ্ঠী বিরোধ নিষ্পত্তির আগেই বিষয়টি নিয়ে গভীর চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র শুরু করে। যে ষড়যন্ত্রের শিকার হয় গৃহবধু তাজমিরা। চক্রান্তের অংশ হিসেবে মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে ষড়যন্ত্রকারীরা গৃহবধু তাজমিরাকে বসতবাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে। বিভিন্ন সূত্র অনুযায়ী ধারণা করা হচ্ছে গৃহবধুর ভাসুর শহিদুল্লাহ মীর ও তার সহযোগীরা তাজমিরাকে প্রথমে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করার পর ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলাকেটে তার মৃতদেহ ধান ক্ষেতের পাশে ফেলে রাখে। এ ঘটনায় মৃতের ভাই আলমগীর বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামী করে থানায় হত্যা মামলা করে। যার নং- ৩২, তাং- ৩১ জানুয়ারি ২০২৩।

ওসি জিয়াউর রহমান জানান, জায়গা জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে গৃহবধু তাজমিরাকে হত্যা করা হয় এটা অনেকটাই পরিষ্কার। এ ঘটনায় এ পর্যন্ত গৃহবধুর ভাসুর শহিদুল্লাহ ও তার সহযোগী মফিজুল গাজীকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা এ মামলায় গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে উল্লেখ করে ওসি বলেন, ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন চেয়ে আটককৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিজ্ঞ আদালত রিমান্ড মঞ্জুর করলে রিমান্ডে তাদের কাছ থেকে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেরিয়ে আসবে বলে ধারণা করছি। এ হত্যাকান্ডে একাধিক ব্যক্তি জড়িত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও ধারনা করছে থানা পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *