Breaking News

দাকোপের নিখোঁজ ৩ ব্যক্তির কোন হদিস মেলেনি

দাকোপের কালাবগী এলাকা থেকে নিখোঁজ হওয়ার পর ৪ বছরের অধিক সময় অতিবাহিত হতে চললেও ৩ ব্যক্তির এখনো কোন সন্ধান মেলেনি ফলে নিখোজ হওয়া ৩ ব্যক্তির পরিবার পরিজন নিয়ে অত্যন্ত কষ্টের মধ্য  মানবেতর জীবন যাপন করছে।

খোজখবর নিয়ে জানা যায় খুলনার দাকোপ উপজেলার সুতারখালী ইউনিয়নে কালাবগী গ্রামের মৎস্য ও গোলপাতা ব্যবসায়ী তাহের বৈদ্যর পুত্র জলিল বৈদ্য (৪৮) ব্যবসার সুবিধার্থে খুলনা শহরের টুটপাড়ার তালতলা এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করত।

গত ২০ অক্টোবর ২০১১কালাবগী নিজ বাড়ি থেকে চালনা হয়ে খুলনা শহরে যায়। রাত ৮টার দিকে কাজ শেষে বাসায় ফেরার সময় কে বা কারা তুলে নিয়ে যাওয়ার পর আর কোন হদিস মেলেনি।

পরিবারের সদস্যরা জেলার বিভিন্ন থানা পুলিশ ও র‌্যাবের অফিসে নিজেরা ও রাজনৈতিক নেতাদের মাধ্যমে খোজ খবর নিলেও তারা জলিলকে আটকের ব্যাপারে কোন তথ্য তাদের কাছে নাই বলে জানান।

এর কিছুকাল আগে একই ইউনিয়নের একই এলাকার বাসিন্দা স্থানীয় যুবলীগ কর্মী ইউপি সদস্য মরহুম আবুল হোসেন সানার ভাই মনিরুল ইসলাম মনি সানা (৩৫) খুলনার একটি আবাসিক হোটেলে অবস্থান কালে সাদা পোশাকধারী কে বা কারা ডেকে নিয়ে যাওয়ার পর আর কোন খোজ পাওয়া যায়নি।

এর পর একই পরিবারের সদস্য নিখোজ মনি সানার আপন ভাইপো স্থানীয় ভাড়ার মটরসাইকেল ড্রাইভার সাইদুল সানা (২৮) ও একই ভাবে নিখোজ হয়েছে।

মনি ও সাইদুল নিখোজের পর দেশের বিভিন্ন থানা ও র‌্যাব অফিসে খোজ নিয়েও এদের নিখোজের ব্যাপারে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি। উল্লেখ্য এর এক বছর পূর্বে ৫ বার নির্বাচিত ইউপি সদস্য মরহুম আবুল হোসেন সানা হঠাৎ মারা যাওয়ার পর একই পরিবারের ভাই ও ভাইপো মনি সানা ও সাইদুল সানা এভাবে নিখোজ হওয়ার পর গোটা পরিবারটি তছনছ হয়ে গেছে।

বর্তমানে নিখোজ হওয়া ৩ ব্যক্তির দুই পরিবার  মানবেতর জীবনযাপন করছে।

-শচীন্দ্রনাথ মন্ডল, দাকোপ, খুলনা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *