Breaking News

পাইকগাছার ঐতিহাসিক সরল খাঁ দীঘির ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে সংস্কারের উদ্যোগ

মোঃ আব্দুল আজিজ, পাইকগাছাঃ পাইকগাছার প্রায় ৫শ বছরের পুরাতন ঐতিহাসিক সরল খাঁ দীঘি সংস্কার করার উদ্যোগ নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। সোমবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম এর সার্বিক দিক নির্দেশনায় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কাজের উদ্বোধন করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আরাফাত হোসেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, প্যানেল মেয়র শেখ মাহাবুবর রহমান রনজু, কাউন্সিলর অহেদ আলী গাজী, আব্দুল গফফার মোড়ল ও প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল আজিজ। উল্লেখ্য, পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডে প্রধান সড়কের পাশে ৪ একর আয়তনের একটি সরকারি দীঘি রয়েছে। দীঘিটির নাম সরল খাঁ দীঘি। স্থানীয়দের মতে কয়েক’শ বছর পূর্বে পীর সরল খাঁ দীঘিটি খনন করেন। ঐতিহাসিক দীঘিটি ঘিরে অত্র উপজেলার ইতিহাস ও ঐতিহ্য। এলাকাবাসীর মতে সরল খাঁ’র পাইক পেয়াদাররা নৌকায় চড়ে হাট বাজারে যাতায়াত করতো এবং গাছে নৌকা বেঁধে রাখতো। সেখান থেকে অত্র এলাকার নামকরণ হয় পাইকগাছা।

এছাড়া সরল, বান্দিকাটী, ঘোষাল, লস্কর সহ বেশ অনেকগুলো গ্রামের নামকরণ হয়েছে সরল খাঁ ও তার লোক লস্করকে ঘিরে। দীঘিটির একসময় অনেক ঐতিহ্য ছিল। শোনা যায় পুকুরের পানি পান করে বহু মানুষ আরোগ্য লাভ করেছেন। এখান থেকে কয়েক বছর আগেও রোগ মুক্তি সহ মনোবাসনা পূণ্যের জন্য অত্র দীঘির পাড়ে এলাকার মানুষ মানত করতো। স্বাধীনতা পূর্ব এবং পরবর্তী সময়ে দীঘিটি সদর ইউনিয়ন পরিষদ দেখভাল করতো। পরবর্তীতে অনেক বছর পৌরসভা তত্তাবধায়ন করতো। এখান থেকে কয়েক বছর আগে দীঘিটি খুলনা জেলা প্রশাসকের নামে হওয়ায় দীঘিটির পরিচালনা নিয়ে উপজেলা প্রশাসন ও পৌর প্রশাসনের মধ্যে কিছুটা আমলাতান্ত্রিক জটিলতা সৃষ্টি হয়। যার ফলে দীর্ঘদিন দীঘিটি পতিত অবস্থায় পড়ে থাকায় ময়লা আবর্জনা ও আগাছায় ভরে গেছে।

স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ¦ আক্তারুজ্জামান বাবু ও মেয়র সেলিম জাহাঙ্গীর দীঘির পাড়ে দৃষ্টিনন্দন পার্ক করার ঘোষণা দিয়েছেন। এদিকে দীঘিটির ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম। যার অংশ হিসেবে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন কাজ শুরু করা হয়েছে। এরপর পাড় সংস্কার ও উন্নয়ন করা হবে বলে উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী এ কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *