Breaking News

যৌতুক না পেয়ে খালিশপুরে গৃহবধু নির্যাতনের ঘটনায় মামলা দায়ের

যৌতুক না পেয়ে রিতা মনি(১৯) নামের এক গৃহবধুকে নির্মম নির্যাতনের ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে অত্যাচারি স্বামী ও তার মাকে আসামী করে এ মামলা দায়ের করেছেন।

এ ঘটনায় খালিশপুর খানা পুলিশ যৌতুক লোভী স্বামী আবেদ হোসেন জনিকে গ্রেফতার করেছে। বুধবার বেলা ১১টার দিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আবু সাঈদ আলমনগর মোড় এলাকা থেকে জনিকে গ্রেফতার করে।

বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে বলে তদন্তকারী কর্মকর্তা সত্যতা স্বীকার করেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নগরীর খালিশপুর হাউজিং এষ্টেট রোড নং-১৪৬, বাসা নং- এস ৪৬ নং লাইনের বাসিন্দা আনোয়ার হোসেনের মেয়ে রিতা মনির সাথে গত ১৫ জুলাই’১৪ বিয়ে হয় একই এলাকার৪রোড নং-১০৭, এইচ লাইনের-১৮নং বাসার বাসিন্দা জাবেদ হোসেনের ছেলে আবেদ হোসেন জনির।

বিয়ের কিছু দিন পর জনির মুখোশ উন্মোচন হয়। সে নানা অজুহাতে মনির কাছে যৌতুক চায়। মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে আনোয়ার হোসেন মাঝে মধ্যে কম বেশী টাকা দেন। কিন্তু সম্প্রতি যৌতুকের পরিমাণ ২ লাখ টাকা দাবী করে।

এ সময় টাকা দিতে অস্বীকার করলে গত ২১ জানুয়ারী সকাল ৮টায় মনিকে জনি তার বাসায় ফেলে লাঠি ও তালা দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এতে তার মাথা ফেটে রক্ত ঝরে। তার ডাক-চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে আসে। তাকে উদ্ধার করে খুমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে গত ২৬ জানুয়ারী দু’জনের নাম উলে¬খ্য করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। আসামীরা হলো অত্যাচারি স্বামী আবেদ হোসেন জনি(২৮) ও তার মা বিলকিস বেগম(৫০)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *