Breaking News

সাতক্ষীরায় নাগরিক নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নাসিম ময়নাকে স্মরণ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: গভীর শোক, বিনম্র শ্রদ্ধা এবং হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসায় স্মরণ করা হয়েছে বরেণ্য রাজনীতিক, সাতক্ষীরা জেলা নাগরিক কমিটির সাবেক আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু নাসিম ময়নাকে।

স্মরণ সভায় বক্তারা বলেন, আজকের এই দিনে প্রয়াত আবু নাসিম ময়নাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। তার শেখানো ও দেখানো পথে আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। আবু নাসিম ময়না দেশপ্রেমী ও মানবিক গুণাবলসীম্পন্ন একজন মানুষ। তিনি দেশ ও দেশের মানুষকে ভালোবেসেছেন। তিনি ছিলেন একজন সাহসী বীর। কখনো কোনো অন্যায়ের সাথে আপস করেননি, সমঝোতা করেননি। ন্যায়ভিত্তিক আন্দোলন সংগ্রামে অনুপ্রেরণা দিতেন আবু নাসিম ময়না। সেই অনুপ্রেরণাই আজও পথ চলার পাথেয়।

বক্তারা বলেন, আবু নাসিম ময়না ছিলেন সংগ্রামী চেতনার একজন মুক্ত চিন্তাশীল ব্যক্তি। সাতক্ষীরা শহরের শহিদ আবদুর রাজ্জাক পার্কে পুরাতন শহিদ মিনারের পরিবর্তে নতুন শহিদ মিনার প্রতিষ্ঠায় তাঁর অবদান অপরিসীম। ২০১৩-১৪ সালে জামাত-শিবিরের নৈরাজ্য নাশকতা বিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছেন। সাতক্ষীরার ভূমিহীন আন্দোলন, স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন, ১৯৬৬ সালের ৬দফা আন্দোলন, ১৯৬৮ সালের গণআন্দোলন, ’৬৯ এর গণঅভ্যুত্থান, একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণসহ সকল গণতান্ত্রিক আন্দোলনে সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে নেতৃত্ব দিয়েছেন আবু নাছিম ময়না। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর ৭ ডিসেম্বর সাতক্ষীরা হানাদার মুক্ত হলে তিনিই প্রথম তাঁর বাহিনীর সাথে সাতক্ষীরা আদালত প্রাঙ্গনে স্বাধীন বাংলাদেশের মানচিত্র খচিত পতাকা উত্তোলন করেন।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক শেখ আবু নাসিম বিভিন্ন সময়ে সাতক্ষীরা জেলা ছাত্র লীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের শীর্ষ পদে অধিষ্ঠিত থেকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। সাতক্ষীরা জেলার নাগরিক কমিটির আহবায়ক এড. আব্দুর রহিমের মৃত্যুর পর তিনি জেলা নাগরিক কমিটির আহবায়কের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি সাতক্ষীরার জেলার বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত ছিলেন। ২০১৬ সালের ৯ মার্চ তিনি সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন।

মেধা, সততা, পরিশ্রম ও সাহসিকতার সঙ্গে সাতক্ষীরার উন্নয়নে কাজ করেছেন তিনি। দুর্নীতি ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে আজীবন সংগ্রামী ছিলেন তিনি। সাতক্ষীরায় রেল লাইন, বাইপাস সড়ক, মেডিকেল কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, ভোমরায় পূর্ণাঙ্গ স্থল বন্দরসহ বিভিন্ন স্বপ্ন ছিল তার।
বক্তরা বলেন, আবু নাসিম ময়না গণমানু‌ষের জন্য কাজ করে গেছেন। গরীব অসহায় ও সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। সচেতন মানুষদের উদ্বুদ্ধ করে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রাম করে গেছেন। আমরা স্বাধীন দেশ পেয়েছি। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আজও বাস্তবায়ন হয়নি। বীরমুক্তিযোদ্ধা আবু নাসিম ময়না আজ আর আমাদের মাঝে নেই। কিন্তু তাঁর কর্মময় জীবন, সংগ্রামী চেতনা ও দরদি মানসিকতা আমাদের জন্য অনুকরণীয় হতে পারে। তাঁর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।

শনিবার (১১ মার্চ) সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় পাবলিক লাইব্রেরিতে বিশিষ্ঠ রাজনীতিবীদ, জেলা নাগরিক কমিটির সাবেক আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আবু নাসিম ময়নার সপ্তম মত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সাতক্ষীরা নাগরিক আন্দোলন ও শেখ আবু নাসিম ময়না শীর্ষক ওই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা নাগরিক কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক শেখ আজাদ হোসেন বেলাল। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নাগরিক নেতা শেখ আজহার হোসেন। বরেণ্য অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, নাগরিক নেতা প্রফেসর আব্দুল হামিদ, জেলা নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব ও সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, উন্নয়ন সংস্থা স্বদেশের পরিচালক ও মানবাধিকার কর্মী মাধব চন্দ্র দত্ত, জেলা বাসদের সমন্বয়ক নিত্যানন্দ সরকার, জেলা সিপিপির সভাপতি আবুল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক শেখ হারুন উর রশিদ, জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক কাজী আক্তার হোসেন, উদীচীর সভাপতি শেখ সিদ্দিকুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষক সম্পাদক এড: ওসমান গনি, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক জ্যোৎস্না দত্ত, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি মাহফুজা সুলতানা রুবি প্রমুখ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আলিনুর খান বাবুল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *